আজ || মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২
শিরোনাম :
  তালার খলিলনগরে পুকুরে ডুবে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু       বন্যায় বাংলাদেশের ১৫ লাখের বেশি শিশু ঝুঁকিতে       তালায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে তালা সদর চ্যাম্পিয়ন       তালায় সিআইজি সদস্যদের মাঝে মৎস্য উপকরণ বিতরণ       তালায় বিশ্ব জীববৈচিত্র্য দিবস উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা       তালায় বিশ্ব জীববৈচিত্র্য দিবস উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা       তালায় বিশিষ্ট ফল ব্যবসায়ী শেখ শওকত হোসেন সড়ক দূর্ঘটনায় আহত       তালায় প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্রীড়া সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতারণ       সাতক্ষীরায় বারি টমেটোর মতো লবনাক্ত জমিতে লেবুচাষাবাদে কৃষকদের সফলতা আসবে-ড. কামরুল       দ্রব্যমূল্য নিয়ে ৩ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অর্থ ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে মন্ত্রিসভার নির্দেশ    
 


মৃত্যুর কাছে হার মানলেন তামান্না

নতুন স্বামীর সঙ্গে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটার কপোতাক্ষ নদের তীরে সময় কাটানোর সময় সাবেক স্বামীর দেওয়া পেট্রোলের আগুনে দগ্ধ তামান্না খাতুন অবশেষে মৃত্যুর কাছে হার মানলেন। সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
তামান্না খাতুন সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানাধীন কাশীপুর গ্রামের আব্দুল হকের মেয়ে।

কাশিপুর গ্রামের নাজমুল হোসেন জানান, মালয়েশিয়া প্রবাসী কলারোয়া উপজেলা সদরের তুলসীডাঙা গ্রামের সাদ্দাম হোসেনের সঙ্গে দু’ বছর আগে মোবাইল ফোনে পরিচয় হয় তার বড় বোন তামান্না খাতুনের। সম্পর্কের জের ধরে মোবাইলে তাদের বিয়েও হয়। পরবর্তীতে সাদ্দাম বাড়িতে না আসায় তামান্না তাকে তালাক দিয়ে দেয়। গত ১৫ এপ্রিল তামন্নার সঙ্গে পুরাতন সাতক্ষীরার ফরহাদ হোসেনের বিয়ে হয়। এ বিয়েকে মেনে নিতে পারেনি সাদ্দাম হোসেন।

নাজমুল হোসেন আরো জানান, সাদ্দাম এপ্রিল মাসের প্রথম দিকে বাড়িতে আসে। পরবর্তীতে তামান্নার সঙ্গে ফরহাদের বিয়ের খবর জানতে পারে সাদ্দাম। গত ২ এপ্রিল ভগ্নিপতি ফরহাদ তাদের বাড়ি বেড়াতে আসে। ৫ এপ্রিল সন্ধ্যায় তামান্না ও ফরহাদ পাটকেলঘাটা ব্রীজের পার্শ্ববর্তী কপোতাক্ষ নদের তীরে বসে গল্প করছিল। এ সময় সাদ্দাম নিজের গায়ে প্রেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে ওই অবস্থায় তামান্নাকে জড়িয়ে ধরে। এ সময় সাদ্দামের সঙ্গে ছিল আরো তিন জন।

সাদ্দাম তার দেহে আগুন জ্বলাকালিন তামান্নাকে জড়িয়ে ধরে বলে যে, তারা একই সাথে মরবে। তামান্নকে ছাড়িয়ে নিতে গেলে ভগ্নিপতি ফরহাদও অগ্নিদগ্ধ হয়। তাদেরকে প্রথমে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ৬ এপ্রিল ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ণ ইউনিটের ৪ তলার ১৫ নং শয্যায় ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে সাদ্দামকেও ওই হাসপাতালে পুলিশ প্রহরায় ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে তামান্না মারা যায়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে ময়না তদন্ত শেষে রাতে তামান্নার লাশ বাড়িতে আনা হবে।

পাটকেলঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাঞ্চন কুমার রায় জানান, তামান্নাকে পেট্রোলের আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় তার বাবা আব্দুল হক বাদি হয়ে সাদ্দাস হোসেনসহ কয়েকজনের নাম উল্লে¬খ করে শুক্রবার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় সাদ্দামকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে পুলিশ প্রহরায় ঢাকা শেখ হাসিনা বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

একই হাসপাতালে তামান্না চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে মারা গেছে বলে সেখানে উপস্থিত থাকা মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা পাটকেলঘাটা থানার উপপরিদর্শক কৃষ্ণপদ সমাদ্দার তাকে জানিয়েছেন। ময়না তদন্ত শেষে তামান্নার লাশ পাটকেলঘাটার কাশীপুরের নিজ বাড়িতে অভনা হবে। আসামী সাদ্দাম হোসেন ও গ্রেপ্তারকৃত কাশীপুর গ্রামের তুহীনের বিরুদ্ধে ৩০২ ধারা সম্পৃক্ত করার জন্য আদালতে আবেদন করা হবে।


Top