আজ || সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২
শিরোনাম :
  তালায় ৮ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টে সৈকত একাডেমি চ্যাম্পিয়ন       তালায় বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত       সাতক্ষীরায় সেবাপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে কনসালটেশন ম্যাপিং সভা       শ্যামনগরে ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসন প্রকল্পের মুক্ত আলোচনা       শ্যামনগরে একে ফজলুল হক এমসিএ কলেজে সুধী সমাবেশ       শ্যামনগর উপজেলা অনলাইন নিউজ ক্লাবের কমিটি গঠন, সভাপতি মিলন, সম্পাদক বাবুল       নীতি-আদর্শের কারনে সাংবাদিকরা যে সম্মানিত হতে পারে সুভাষ চৌধুরী তার অনন্য উদাহরণ –মনজুরুল আহসান বুলবুল       সাতক্ষীরায় জেলা কৃষকলীগের তৃণমূলের মতামত কে উপেক্ষা করে কমিটি ঘোষনার প্রতিবাদে জেলা কৃষকলীগের অধিকাংশ কাউন্সিলরদের সংবাদ সম্মেলন       বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারত ও শ্রদ্ধা নিবেদন করল সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ       পদ্মপুকুরে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত    
 


শেখ হাসিনার আজ ৭৬তম জন্মদিন

আজ ২৮ সেপ্টেম্বর। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ কন্যা, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন। ১৯৪৭ সালের এই দিনে তিনি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা আনন্দ, উৎসব, দোয়া, প্রার্থনা ও আলোচনা সভার মাধ্যমে দিনটি পালন করবেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বেগম শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিবের পাঁচ সন্তানের মধ্যে জ্যেষ্ঠ শেখ হাসিনা। রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান হিসেবে ছাত্রজীবন থেকে প্রত্যক্ষ রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন তিনি।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ভয়াল কালরাতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সপরিবারে নিহত হন। তখন তিনি ও তাঁর ছোট বোন শেখ রেহানা বিদেশে থাকায় প্রাণে বেঁচে যান। এরপর ১৯৮১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের সম্মেলনে তাঁকে দলের সভাপতি নির্বাচন করা হয়। নির্বাসন শেষে ওই বছরের ১৭ মে দেশে ফেরেন শেখ হাসিনা।

দেশে ফিরে নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও আওয়ামী লীগকে শক্ত সাংগঠনিক ভিতের ওপর দাঁড় করান শেখ হাসিনা। সামরিক শাসন, স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনসহ সব রাজনৈতিক আন্দোলনে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন। হামলা, মামলার পাশাপাশি জেলও খাটেন তিনি। তাঁর নেতৃত্বে ১৯৯৬ সালে জুন মাসে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২১ বছর পরে ক্ষমতায় আসে আওয়ামী লীগ। ২০০১ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে পরাজিত হয় দলটি। এরপর আবারও রাজপথের আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন তিনি। ২০০৭ সালের রাজনৈতিক পটপরিবর্তনে ক্ষমতায় আসে সেনাসমর্থিত সরকার। ওই বছরের জুলাই মাসে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর আওয়ামী লীগের নেতাদের আন্দোলনের মুখে তাঁকে মুক্তি দেয় সেনাসমর্থিত সরকার।

২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীনে মহাজোট বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়। ২০০৯ সালের দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন তিনি। এরপর ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে বিজয়ী হয় দলটি। টানা তৃতীয় মেয়াদের পাশাপাশি চতুর্থ মেয়াদে সরকার গঠন করেন তিনি।

আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের সুফল পাচ্ছে আজ দেশবাসী। অমিত সম্ভাবনার দেশ হিসেবে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে এক অপ্রতিরোধ্য গতিতে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন আজকের পত্রিকাকে বলেন, তিনি সম্মোহনী, উদ্ভাবনী, সাহসী দিকনির্দেশক নেতা। তিনি ঘটনাক্রমে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সরকারপ্রধান। তাতে করে বাঙালি অনেক কিছু পেয়েছে তাঁর কাছ থেকে।
এবারের জন্মদিনে দেশে থাকছেন না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্ক গেছেন তিনি। তাঁর অনুপস্থিতিতে উৎসবমুখর পরিবেশে জন্মদিনের কর্মসূচি পালন করবে আওয়ামী লীগ।


Top