আজ || বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২
শিরোনাম :
  তালায় চিংড়ি চাষিদের একদিনের প্রশিক্ষণ       তালায় আশ্রায়ণ প্রকল্পে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান উদ্বোধন       শ্যামনগরে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৬শ ৬৫ শিক্ষার্থী       ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য পদ পেলেন শ্যামনগরের তরিকুল ইসলাম বাবু       তালায় ৪০ পরিবারের মাঝে গাছসহ কৃষি উপকরণ বিতরণ       তালায় ৮ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টে সৈকত একাডেমি চ্যাম্পিয়ন       তালায় বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত       সাতক্ষীরায় সেবাপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে কনসালটেশন ম্যাপিং সভা       শ্যামনগরে ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসন প্রকল্পের মুক্ত আলোচনা       শ্যামনগরে একে ফজলুল হক এমসিএ কলেজে সুধী সমাবেশ    
 


মণিরামপুরে স্বাস্থ্যকর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

যশোরের মণিরামপুরে এক স্বাস্থ্যকর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। রোববার (১২এপ্রিল) বিকেলে ইউএনও আহসান উল্লাহ শরিফী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ওই স্বাস্থ্যকর্মী মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পিছনে একটি বাড়ির ভাড়াটিয়া। তিনি ঝাঁপা ইউনিয়নে কর্মরত। বর্তমানে তিনি মুজগুন্নী গ্রামে শ্বশুর বাড়িতে রয়েছেন।
করোনা সনাক্ত হওয়ায় সেই ভাড়াবাড়ি, মশ্মিমনগরে তার নিজের বাড়ি এবং শ্বশুর বাড়ি লকডাউনের সিদ্ধান্ত চলছে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য পরিদর্শক আব্দুল মজিদ জানিয়েছেন।

মণিরামপুর হাসপাতালের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ল্যাব) আনিসুজ্জামান জানান, এই পর্যন্ত মণিরামপুর হাসপাতাল থেকে ১১ জনের নমুনা সংগ্রহ করে সিভিল সার্জন অফিসের মাধ্যমে খুলনায় পাঠানো হয়েছে। তারমধ্যে একজনের রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। আক্রান্ত ব্যক্তি একজন স্বাস্থ্যকর্মী।

মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শুভ্রা রানী দেবনাথ বলেন, মণিরামপুর হাসপাতাল থেকে সন্দেহভাজন ১১ জনের নমুনা সংগ্রহ করে খুলনায় পাঠানো হয়েছিল। তারমধ্যে একজনের রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। তিনি আমাদের স্বাস্থ্য কর্মী।

শুভ্রা রানী দেবনাথ আরো বলেন, যশোর থেকে অ্যাম্বুলেন্স আসছে। তাকে সিভিল সার্জন অফিসে পাঠানো হচ্ছে। সেখান থেকে তার চিকিৎসার বিষয়টি সিদ্ধান্ত হবে।

মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান উল্লাহ শরিফী বলেন, ওই স্বাস্থ্যকর্মী যাদের সাথে মিশেছেন সেই ব্যাপারে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ওই স্বাস্থ্যকর্মীর বাড়ি লকডাউন করা হবে।

যশোরের সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন জানান, যশোর জেলায় মোট ১০১ জনের নমুনা সংগ্রহ করে খুলনায় পাঠানো হয়েছে। তারমধ্যে ৩২ জনের নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছে এবং মৌখিক ভাবে খুলনা থেকে জানানো হয়েছে একজনের পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে, আক্রান্ত ব্যক্তি একজন স্বাস্থ্যকর্মী। তাকে সিভিল সার্জন অফিসে আনা হচ্ছে। সেখান থেকে তার চিকিৎসার বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত হবে।
খুলনার বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডাক্তার রাশিদা সুলতানা জানান, ওই স্বাস্থ্যকর্মীকে হরিরামপুরের তার নিজ বাড়িতে আইসোলেশন রাখা হয়েছে। আগামীকাল সোমবার দুপুরে ঢাকা আইইডিসিআর এর সংবাদ সম্মেলন থেকে কনফার্ম করার পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।


Top