আজ || সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২
শিরোনাম :
 

সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন


বসত বাড়ির উপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণে বাধা দেওয়ায় মারপিট ও মিথ্যা মামলার হুমকি

সাতক্ষীর আশাশুনিতে হিন্দু সম্প্রদায়ের বসত বাড়ির উপর দিয়ে জোরপূর্বক রাস্তা নির্মাণে বাধা দেওয়ায় যুবতী কন্যার শ্লীলতাহানিসহ মারপিট, খুন জখমের হুমকি ও মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন আশাশুনির বড়দল গ্রামের মৃত. যগেন দাশের কন্যা নূপুর দাশ।
লিখিত বক্তব্যে নূপুর দাশ বলেন, আমরা বড়দল এলাকার ৫টি অসহায় পরিবার। আমার বাবা-দাদুরা দীর্ঘদিন সেখানে অত্যান্ত শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করে আসছিলেন। কিন্তু আমরা সেখানে সংখ্যালঘু হওয়ার সুযোগে সম্প্রতি একই এলাকার খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের কতিপয় ব্যক্তি জোরপূর্বক আমাদের সম্পত্তির উপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণের চেষ্টা করে। অথচ তাদের অন্যপাশ দিয়ে যাতায়াতের রাস্তা রয়েছে। তারপরও প্রভাবখাটিয়ে আমাদের সম্পত্তির উপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণের জন্য নানা ষড়যন্ত্র শুরু করে। এতে বাধা দেওয়ায় মৃত. নিমাই মন্ডলের নারীলোভী লম্পট পুত্র বিকাশ মন্ডল আমাকে রাস্তাখাটে কু প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এঘটনায় আমার মাতা তপতী দাস নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০(সংশোধনী ২০০৩) এর ১০ ধারায় মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরের পর বিকাশ দাসও তার সহযোগীরা ক্ষিপ্ত হয়ে খ্রিষ্টান পাড়ার মৃত নরেন মন্ডলের পুত্র বিশ^জিৎ মন্ডল, মৃত. নিমাই মন্ডলের পুত্র বিজন মন্ডল, মৃত. টেটে মন্ডলেরপুত্র জগদীশ, কান্ত নাগের পুত্র মঙ্গল নাগ, সুভাষ নাগ, মৃত. রাধা মন্ডলের পুত্র বিনোদ মন্ডল, মৃত. বেড়ে মন্ডলের পুত্র অনীল মন্ডল, মৃত. নিমাই এর স্ত্রী কল্পনা, কন্যা কাকুলি মন্ডল, বিনোদ মন্ডলের কন্যা আন্না মন্ডল, মৃত. মনোর পুত্র ডমিনিক আমাকেসহ আমাদের ৫টি পরিবারের সদস্যদের শারিরীক ও মানষিকভাবে নির্যাতন চালিয়ে অতীষ্ট করে তুলেছে।


একপর্যায়ে গত ২৪ মার্চ ‘২০ তারিখে আমাদের বাড়িতে পুরুষ মানুষ না থাকার সুযোগে লম্পট বিকাশসহ উল্লেখিত ব্যক্তিরা আমাদের বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় বিকাশ আমাকে নির্যাতনসহ চুলের মুঠি ধরে মারপিট করতে থাকে এবং পরনের কাপড় ছিড়ে শ্লীলতাহানি ঘটনায়। মাতা তপতী দাস এগিয়ে আসলে তাকে শ^াসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় সন্ত্রাসীরা আমাদের বাড়িঘর ভাংচুর, ঘরে থাকা স্বর্ণের গহনা, নগদ টাকাসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটপাট করে। আমাদের ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে তারা চলে যায়। চলে যাওয়ার সময় আমাকে রাস্তা ঘাটে ফাকা পেলে সম্মাননষ্টসহ খুন জখম ও মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানির ষড়যন্ত্র অব্যাহাত রেখেছে। একদিকে আমার পিতা নাই, অন্যদিকে আমরা অত্যান্ত অসহায় ও গরিব প্রকৃতির। তাছাড়া সেখানে আমাদের মাত্র ৫টি পরিবারের বসবাস। বিশেষ করে বিকাশসহ উল্লেখিত ব্যক্তিরা প্রকাশ্যে আমার সম্ভ্রম নষ্টের হুমকি অব্যাহত রয়েছে।
এব্যাপারে তিনি বিকাশসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ এবং পরিবারের সদস্যদের জীবনের নিরাপত্তা দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।


Top