আজ || বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
শিরোনাম :
  তালা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা মহাবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন       তালা মহিলা কলেজে নবীন বরণ ও আইসিটি ভবনের উদ্বোধন       জাতীয় শিশু পুরষ্কার পেলো তালার রিফাত হাসান       সুখবর দিলেন মিথিলা       সুগন্ধির বোতল কোথায় রাখলে সুবাস টিকবে বেশি দিন?       গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত আছে বলেই ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী       জাতীয় শিশু পুরষ্কার পেলো তালার ক্ষুদে বিজ্ঞানী জাবের অংগন       তালায় ট্রাকের ধাক্কায় মটরসাইকেল আরোহী নিহত       তালায় এসইপি প্রকল্পের উদ্দ্যোগে মৃৎপন্যের মানোন্নায়নে দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ       তালায় চুরির অপবাদে শিশুকে নির্যাতনের মামলায় দুইজন গ্রেপ্তার    
 

সাতক্ষীরার ডায়েরি খ্যাত সাংবাদিক সুভাষ চৌধুরীর স্মরণে নাগরিক শোক সভায়


নীতি-আদর্শের কারনে সাংবাদিকরা যে সম্মানিত হতে পারে সুভাষ চৌধুরী তার অনন্য উদাহরণ –মনজুরুল আহসান বুলবুল

রিয়াদ হোসেন: সাতক্ষীরার ডায়েরি খ্যাত সাংবাদিক সুভাষ চৌধুরীর স্মরণে নাগরিক শোক সভায় বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)’র সাবেক সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল বলেছেন, নীতি-আদর্শের কারনে সাংবাদিকরা যে সম্মানিত হতে পারে সুভাষ চৌধুরী হলো তার অনন্য উদাহরণ।

শনিবার জেলার শিল্পকলা একাডেমির হলরুমে নাগরিক শোকসভা আয়োজক কমিটি, সাতক্ষীরার উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)’র সাবেক সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল, বিএফইউজের বর্তমান সভাপতি ওমর ফারুক, সাবেক সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মুজিবুর রহমান, সুন্দরবন ও উপকূল সুরক্ষা আন্দোলনের সমন্বয়ক নিখিল চন্দ্র ভদ্র, সাতক্ষীরার পৌরসভার মেয়র তাসকিন আহমেদ চিশতি, একাত্তর টিভির সহযোগী প্রধান বার্তা সম্পাদক, কালের কন্ঠের খুলনা ব্যুরো গৌরাঙ্গ নন্দী, পত্রদূত সম্পাদক লায়লা পারভীন সেঁজুতি, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজ)’র ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক সাকিলা পারভীন, বিএফইউজে’র যুগ্ম মহাসচিব মো. হেদায়েত হোসেন, বিএফইউজে’র নির্বাহী সদস্য কৌশিক দে, তালা মহিলা কলেজের প্রভাষক সুতপা রাহা টুম্পা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আলীম সাহিত্য সংসদের সাধারণ সম্পাদক সানজিদুল হাসানসহ স্থানীয় বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা, প্রেসক্লাব, রিপোর্টাস ক্লাবের সাংবাদিকবৃন্দ এবং বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

এসময় মনজুরুল আহসান বুলবুল বলেন, সাংবাদিকরা বেড়িবাঁধ নিয়ে, ভূমিহীনদের জন্য কথা বলে। সমাজে যেন তাদের মৌলিক অধিকার ক্ষুণ্ণ না হয়, তারা যেন প্রাপ্য অংশ বুঝে পায় এগুলোই তুলে ধরে তাদের কলমে। সেক্ষেত্রে দেখা গেছে সাংবাদিকরা সমস্ত কাজ করে অধিকার বঞ্চিত সাধরন মানুষের এবং সমাজের জন্য। আর সেই কাজের মধ্যেই তারা আত্মতৃপ্তি ও মর্যাদা খুঁজে পায়। তবে অনেক সময় সাংবাদিকতায় অসম্মানজনক পরিস্থিতিরও সৃষ্টি হয়ে থাকে। তাই সাংবাদিক হিসেবে আমাদের এটি নিয়েও কোনো অতৃপ্তি নেই। আমরা যদি ঠিক জায়গায় থাকি, সততার সাথে কাজ করে চলি তাহলে চূড়ান্ত বিচারে আমরা সুভাষ চৌধুরীর মতো সম্মান পাবো।

তাই আমাদের কাজে সুভাস চৌধুরীর মতো নীতি-নৈতিকতা, সততা এবং পেশাদারিত্বের জায়গায় তার মতো হতে না পারি তাহলে এ শোকসভা অর্থহীন। এসময় তিনি আজকের স্মরণ সভা থেকে তার পথচলা, জীবন সংগ্রামের স্মৃতি এবং আদর্শের জায়গাটি শুধু তরুণ নয় সকল বয়সী সাংবাদিকদের মধ্যে ধারন করার আহ্বান জানান। এসময় তিনি বলেন, সাংবাদিকতা বর্তমান চ্যালেঞ্জর মুখে৷ এসব সংকট মোকাবেলায় স্থানীয় সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ায় আহ্বান জানান তিনি। বক্তব্যে নিখিল চন্দ্র ভদ্র বলেন, স্থানীয় পর্যায়ে সাংবাদিকতা করেও এ পেশায় যে সম্মানিত হওয়া যায়, কিংবদন্তি হওয়া যায় তার দৃষ্টান্ত সুভাষ চৌধুরী। তিনি সারাটা জীবন একজন শিক্ষার্থীর মতো করে শিখে গেছেন।

সাতক্ষীরার উপকূল, জলাবদ্ধতা নিরসনে সবসময় নিজ দায়িত্বে কাজ করে গেছেন। যার জন্য তিনি আজীবন আমাদের হৃদয়ে থাকবেন। ওমর ফারুক বলেন, এই দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে মানিক সাহা, সুভাষ চৌধুরী এবং শামসুর রহমান কেবল নামে তিনজন সাহসী সাংবাদিকের সাথে আমাদের বহু আগের পরিচয়।

একে একে এমন মানুষগুলোকে আমরা হারিয়ে ফেলছি। এই শোক সভায় এতো মানুষের আবেগ, অনুভূতি, ভালোবাসা দেখেই বোঝা যাচ্ছে সুভাষ চৌধুরী একজন সৎ, নীতিবান মানুষ ছিলেন। মফস্বলে তার মতো একজন গুণি মানুষের শোক সভায় আসতে পেরে অনেক ভালো লেগেছে। অনুষ্ঠানে সভাপতি নজরুল ইসলাম বলেন, আমার মতো অনেক রাজনৈতিক ব্যক্তিরাও সমস্যায় পড়লে তার কাছে গিয়ে সমাধান খোঁজার চেষ্টা করেছে। তিনি তার বিবেক মতো আমাদের পথ খুঁজে উত্তরণে সহায়তা করেছেন।

আমাদের এমন জীবনই গড়া উচিত যেন মৃত্যুর পরে সুভাষ চৌধুরীর মতো আমরাও যেন স্মরণীয় বরণীয় হয়ে থাকতে পারি। সবশেষ নাগরিক শোকসভা আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক এড. আবুল কালাম আজাদ বলেন, সুভাষ চৌধুরীরা যে কখনও হারিয়ে যায় না, হারাতে পারে না তা এই শোক সভায় আপনাদের উপস্থিতি আরো একবার প্রমাণ করলো। আপনাদের ভালোবাসায় সুভাস চৌধুরী বেঁচে থাকুক হাজার বছর এমন প্রত্যাশাই আমাদের।


Top