তালায় সিগারেট কোম্পানীর কভার্ডভ্যানে ছিনতাইয়ের চেষ্টা-আটক-১

এম এ ফয়সাল, বিশেষ প্রতিনিধি :
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১

তালায় রাস্তায় ব্যারিকেট দিয়ে কভার্ডভ্যান থেকে টাকা ছিনতাই কালে সালাম মির্জা (২১) নামের এক ছিনতাইকারীকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসি। আটক সালাম মির্জা উপজেলার ভায়ড়া গ্রামের সেলিম মির্জার ছেলে। থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে তাকে আদালতে সোপর্দ করেছে। স্থানীয় জণতার হাতে আটক ছালাম মির্জা গণপিটুনির সময় বলে, তারা ছিনতাই সহ স্থানীয় এক ঠিকাদারকে হত্যার মিশন নিয়ে মাঠে নেমে ছিল।
থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, বুধবার বিকালে জাপান টোবাকো ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানীর একটি কভার্টভ্যান তালা ও শাহাপুর বাজারে সিগারেট বিক্রি করে জাতপুরের দিকে যাওয়ার পথে আগোলঝাড়া ও তেঁতুলিয়ার মধ্যবর্তী কালভার্টে উপর কয়েকজন ছিনতাইকারী গাড়ীটি থামিয়ে ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। এ সময় তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী ছিনতাইকারীদের ধাওয়া করলে সালাম মির্জাকে আটক করে। এ সময় কালাম বিশ্বাস ও হযরত সরদার নামের অপর দুই ছিনতাইকারী পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। এলাকাবাসী আরও জানায়, ছিনতাইকারী সকলেই নেশাগ্রস্থ। গণপিটুনি কালে আটক ছালাম জানায়, শাহপুর গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য বুধো খাঁর ছেলে ঠিকাদার মিজানুর খাঁ কে হত্যার মিশন নিয়ে তারা মাঠে নেমেছিল। আটক সালাম মির্জাকে মারপীট কালে আরও জানায়, দীর্ঘদিন যাবৎ তারা নিয়মিত গাঁজা সেবন করে আসছে। হযরতের কথা মতো সে মুখোশ তৈরী করেছে। জনৈক মোহর আলীর কাছ থেকে তারা গাঁজাসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য ক্রয় করে বলে জানায়। সে আরও জানায়, শাহাপুর গ্রামের সাবেক বুদো মেম্বারের ছেলে মিজানুরকে মারার কথা বলে হযরত আমাকে দিয়ে মুখোশ বানিয়ে দিয়েছে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য দেলোয়ার হোসেন সোনা জানান, আটক সালাম মির্জার কাছ থেকে ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত মুখোশ, গাঁজা, কাটারী, আলো তামাক, নারিকেলের ছোবড়া, গাঁজা খাওয়ার বাঁশিসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে পুলিশ। টোবাকো ইন্টারন্যাশনালের এস আর যশোরের কেশবপুর উপজেলার হিজলডাঙ্গা গ্রামের মৃতঃ এলাহি বক্স মোড়লের ছেলে মোঃ মিজানুর রহমান জানান, গাড়ীতে কভার্ডভ্যানে থাকা ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে ছিনতাই কারীরা। এ সময় তার আতœচিৎকারে এলাকাবাসি এগিয়ে আসলে ভায়ড়া গ্রামের কালাম বিশ^াস ও হযরত সরদার পালিয়ে গেলেও সালাম মির্জাকে ধরে ফেলে এলাকাবাসী। এরপর উত্তেজিত জনতা তাকে মারপিট করে তাকে ইউপি সদস্য বাড়িতে আটকে রাখে। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
তালা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জ্যোর্তিময় মন্ডল জানান, আটক সালাম মির্জাসহ তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে, যার নং-৩, তারিখ-১৪/০৭/২১।

তালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মেহেদী রাসেল আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে তাকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তবে মিজান খাঁ কে হত্যার কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেনি। তারপরেও বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

অন্যকে জানাতে শেয়ার করুন

আরও পড়ুন