তালার খেশরায় টিসিবির পণ্য কিনতে মধ্যবিত্তের ভিড়

তালা নিউজ ডেস্ক।।

  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ১ মে ২০২০, ১৬:১০
  • ২৪৬

রিয়াদ হোসেন || করোনার প্রভাবে খরচ বাঁচাতে ভর্তুকিমূল্যে পণ্য কিনতে নিম্নআয়ের মানুষের সঙ্গে মধ্যবিত্তরাও ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)-এর বিক্রয় কেন্দ্রে ভিড় করতে শুরু করেছেন। লজ্জা ভেঙে দাঁড়িয়েছেন দীর্ঘ লাইনে। কিনছেন কম দামে পণ্য।

আজ ১ মে শুক্রবার খেশরার শালিখা বাজারে মেসার্স শেখ ট্রেডাস এর পরিচালনায় টিসিবির পণ্য বিক্রয় করতে দেখা গেছে।

খেশরায় টিসিবির বিক্রয় কেন্দ্রে পণ্য কিনতে এসেছেন মোঃ আছাদুজ্জামান। তিনি দীর্ঘ নিঃশ্বাস ফেলে তালা নিউজকে জানান, আমি আমার পরিবার নিয়ে চলতে পারছি না।করোনার প্রভাবে বেশ বিড়ম্বনার মধ্যে পড়ে গেছি।ছেলে-মেয়ের খরচ ও নিত্যপণ্য কিনতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছি। এখানে বাজারমূল্যের চেয়ে অনেক কমে পণ্য কেনা যাচ্ছে। বিক্রেতা বলেন, কয়েকদিন আগেও টিসিবির এই বিক্রয় কেন্দ্রে নিম্নআয় ও খেটে খাওয়া মানুষের ভিড় বেশি লক্ষ করা গেছে। এখন মধ্যবিত্তরাও ভিড় করছেন।

টিসিবির বিক্রয় কেন্দ্রে পণ্য কিনতে আসা শেখ জামিলুর রহমান বলেন, প্রতি কেজি চিনি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা। কিন্তু বাজারে ৭০ টাকা। কেজিতে ২০ টাকা সাশ্রয় হচ্ছে। এ ছাড়া লিটারে ২০ টাকা সাশ্রয় হয়েছে সয়াবিন তেলে। আর মসুর ডাল পাচ্ছি ৪০-৫০ টাকা। তিনি বলেন, কিছুটা সাশ্রয়ের জন্য লাইনে দাঁড়িয়েছি। এই স্থানের বিক্রয় কর্মীরা জানান,সর্বাধিক ভীড় থাকার কারনে একজন ক্রেতা ৫০ টাকা কেজি দরে সর্বোচ্চ ২ কেজি করে চিনি কিনতে পারবেন। এ ছাড়া ৫০ টাকা কেজি দরে সর্বোচ্চ ১ কেজি মসুর ডাল এবং ৮০ টাকা লিটার দরে সর্বোচ্চ ২ লিটার সয়াবিন তেল কিনতে পারছেন একজন ক্রেতা।

তাদের কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চাইলে টিসিবির ডিলার মেসার্স শেখ ট্রেডাস জানান, টিসিবি গত বছরের তুলনায় এবার বেশি পণ্য নিয়ে মাঠে আছে। পর্যাপ্ত পণ্য দিয়ে প্রতিদিন স্পটে পাঠানো হচ্ছে। পণ্যের কোনো সংকট নেই। এ পণ্য সর্ব স্তরের মানুষ কিনতে পারবেন।

অন্যকে জানাতে শেয়ার করুন

আরও পড়ুন

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু

বিশ্বে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু