আজ || সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২
শিরোনাম :
  বঙ্গবন্ধু পরিষদ খুলনা মহানগর শাখার সহ- বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক হয়েছেন গৌতম       তালা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা মহাবিদ্যালয়ের ৪ শিক্ষার্থী ঢাবিতে চান্স পেয়েছে       তালা উপজেলা পর্যায়ে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে শ্রেষ্ঠ হলেন যারা       তালায় গৃহশিক্ষককে না পেয়ে ঘর ভাংচুর!       সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে তালা সরকারি কলেজ সড়কে       তালায় মোটরসাইকেল চোর চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার       স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল অর্থনীতিতে উত্তরণের চ্যালেঞ্জ’– বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত       তালা মহিলা কলেজ থেকে ঢাবিতে চান্স পেয়েছে সামিয়া ও প্রজ্ঞা       তালায় রথযাত্রা উৎসব শুরু       ঈদুল আজহা ১০ জুলাই    
 


ঢাবির ভর্তি যুদ্ধে অদম্য তামান্না’র পাশে জেলা ছাত্রলীগ সা. সম্পাদক ইমরান হোসেন

রিয়াদ হোসেন : তামান্না আক্তার নূর (১৯)। জীবনযুদ্ধে হার না মানা এক সৈনিক। শারীরিক প্রতিবন্ধী হয়েও ইতোমধ্যে নিজের ইচ্ছেশক্তি আর অদম্য মনোবলে অসাধ্যকে সাধন করেছেন। সব চড়াই-উতরাই পেরেয়ি জয় করেছেন জীবনে চলার পথের প্রতিকূল পরিবেশকে। সব আলোচনা-সমালোচনাকে পিছনে ফেলে অসীম স্বপ্ন নিয়ে হেঁটে চলেছেন অনাগত সুন্দর একটি ভবিষ্যত রচনা করতে। বলছিলাম যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া আলীপুরের রওশন আলী ও খাদিজা পারভীন দম্পতির বড় মেয়ে তামান্না আক্তার নূরের কথা।

তামান্না ২০১৯ সালে বাঁকড়া জনাব আলী খান মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়। এরপর ভর্তি হন বাঁকড়া ডিগ্রি কলেজে। সেখানেও বিজ্ঞান বিভাগ থেকে নিজের মেধার সাক্ষর রাখেন। ২০২১ সালে এইচএসসি পরীক্ষা দিয়ে আবারো জিপিএ-৫ অর্জন করেন। এবার লড়ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি সিটের জন্য। গত ১১ জুন (শনিবার) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘ ইউনিটের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন সে। বিভাগীয় শহরে ঢাবির পরীক্ষা হওয়ায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা দিতে আসলে তার পাশে দাঁড়ান খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইমরান হোসেন। তামান্না পরীক্ষা কেন্দ্রে আসলে তাকে তার আসন অনুযায়ী ডিপার্টমেন্টে নিয়ে যাওয়াসহ পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য সকল সহযোগীতা করেন তিনি৷ এসময় তামান্নার সাথে আসা তার পিতা-মাতার সকল দায়িত্ব গ্রহন করতে দেখা যায় এই ছাত্র নেতাকে।

জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইমরান হোসেন বলেন, ‘আপনারা জানেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ দেশ, জাতি এবং শিক্ষার্থীদের নিয়ে কাজ করে। তারই ধারাবাহিকতায় আজ আমরা আমাদের ছোট বোন তামান্নার পাশে দাঁড়িয়েছি। তাকে অনুপ্রেরণা দেওয়ার জন্য খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে আসার সাথে সাথে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানায়। এরপর তাকে তার আসনে বসার ব্যবস্থা এবং পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার জন্য যাবতীয় সহযোগিতা করার চেষ্টা করেছি। মেধাবী তামান্না মাইক্রোবায়োলজি বিষয় নিয়ে পড়ার স্বপ্ন দেখছে। তার এই স্বপ্ন যেন সফল হয় আমি সেই কামনাই করছি।’ এসময় তিনি সফল রাষ্ট্রনায়ক দেশরত্ন শেখ হাসিনা এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ সকলে তামান্নার পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।


Top