ব্রেকিং নিউজঃ
আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৯ নং মথুরেশপুর ইউনিয়নে প্রার্থী হতে চান সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহেদ মারুফ অবিলম্বে কপালিয়া বিলে টিআরএম সহ পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়নের উত্তরণের কারিগরি প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধন তালায় শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সচেতনতায় ‘আমরা বন্ধু’র উঠান বৈঠক তালার খেশরায় অসহায় পরিবারের বসতবাড়িসহ জমি দখল চেষ্টা তালায় সেনাসদস্যের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার তালায় ভানী ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এতিমদের মাঝে খাদ্য বিতরণ উত্তরণের বাস্তবায়নে তিনমাস মেয়াদী কারিগরি প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধন পাইকগাছায় সুন্দরবনের বনদস্যু বাহিনীর প্রধান রুস্তম অস্ত্রসহ আটক মুক্তিযোদ্ধাদের নামের আগে ‘বীর’ ব্যবহার করতে হবে, গেজেট প্রকাশ

জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কলেজ ছাত্রকে মিথ্যা ধর্ষন মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিনিধি:

  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর ২০২০, ১৬:৩২
  • ৭৭

কালিগঞ্জে জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মাদক ব্যবসায়ী পরিবার কর্তৃক কলেজ ছাত্রকে মিথ্যা ধর্ষন মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কালিগঞ্জের কুলিয়া দুর্গাপুরের মেনা মোল্লার ছেলে শফিকুল ইসলাম।
তিনি বলেন আমার ভাই মাহাফিজুল ইসলাম সখিপুর কলেজে বিএ অনার্সের ছাত্র। আমরা দরিদ্র পরিবার হওয়ায় লেখাপড়ার পাশাপাশি শ্রমিকের কাজ করে জীবিক নির্বাহ করি। জমি জমা সংক্রান্ত বিষয়ে কালিগঞ্জের বসন্তপুর গ্রামের সাগর শিকদারের সাথে আমাদের বিরোধ চলে আসছিল। উক্ত সাগর নিজে একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। জমি জমা নিয়ে আমাদের হয়রানির করার জন্য সাগর প্রায়ই হুমকি দিতো। সম্প্রতি আমার ভাই কলেজ ছাত্র মাহাফিজুল ইসলাম মাদকসহ সাগরকে আটকে পুলিশকে সহযোগিতা করে। প্রায় ১মাস জেল হাজত খাটে সে। এঘটনায় সাগর তার উপর ক্ষিপ্ত হয় এবং তাকে হয়রানির করার জন্য নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। এদিকে সারা দেশ ধর্ষনের প্রতিবাদ উত্তাল ঠিক তখনই প্রতিশোধের নেশায় পাগল হয়ে ওই মাদক ব্যবসায়ী সাগর নিজের কন্যার ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তার ৭ম শ্রেণির পড়–য়া কন্যা শারমিন সুলতানাকে দিয়ে ধর্ষণের নাটক সাজিয়ে থানায় মিথ্যা অভিযোগ করে। এঘটনায় পুলিশ মাহাফিজুল ইসলামকে আটক করে জেলা হাজতে প্রেরণ করে। এই ধর্ষন মামলার কোন ভিত্তি নেই, সম্পূর্ণ সাজানো এবং পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। ধর্ষনের মামলা হলে অবশ্যই তার মেডিকেল টেষ্ট লাগবে, ধর্ষনের আলামত লাগবে। কিন্তু ওই কন্যার মেডিকেল টেষ্ট করা হয়নি এবং তার ধর্ষনের কোন আলামত ও নেই। উক্ত মামলায় যে সময় ও স্থান উল্লেখ করা হয়েছে সেখান থেকে প্রায় ৫কিলোমিটার দূরে আমাদের বাড়ি কুলিয়াদূর্গাপুরে অবস্থান করছিল। প্রকৃতপক্ষে যেদিন আমার ভাই মাহাফিজুল কে আটক করা হয় সেদিন থানায় আমাদের শালিস মিমাংসার কথা ছিলো। সেখানে মাহাফিজুল উপস্থিত হলে সাগর শিকদারের মিথ্যা মামলায় তাকে আটক করে কারাগারে প্রেরণ করে। আমার ভাই মাহাফিজুল এলাকায় একজন ন¤্র ভদ্র শিক্ষার্থী হিসেবে পরিচিত। শুধু মাত্র মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় তার বিরুদ্ধে ধর্ষনের মামলা দিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যম ও পত্রপত্রিকায় সাংবাদিকদের ভুল তথ্য দিয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশণ করে সামাজিকভাবে হেয় এবং হয়রানি করা হচ্ছে। আমাদের দাবি ধর্ষিতার দ্রুত মেডিকেল টেস্ট করানো হোক এবং সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। আমাদের বিশ্বাস মেডিকেল টেস্ট এবং সুষ্ঠু তদন্ত হলে আমরা ন্যায় বিচার পাবো। ওই মাদক ব্যবসায়ী সাগর শিকদারের ষড়যন্ত্রের বিষয়টি পরিস্কার হবে।
তিনি অবিলম্বে ধর্ষিতার মেডিকেল টেস্ট এবং সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক মাহাফিজুল ইসলামকে মিথ্যা মামলায় দায় হতে অব্যহতি ও মাদক ব্যবসায়ী সাগর কর্তৃক মিথ্যা মামলা করায় তারদৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানায়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

অন্যকে জানাতে শেয়ার করুন

আরও পড়ুন