ব্রেকিং নিউজঃ
আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৯ নং মথুরেশপুর ইউনিয়নে প্রার্থী হতে চান সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহেদ মারুফ অবিলম্বে কপালিয়া বিলে টিআরএম সহ পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়নের উত্তরণের কারিগরি প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধন তালায় শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সচেতনতায় ‘আমরা বন্ধু’র উঠান বৈঠক তালার খেশরায় অসহায় পরিবারের বসতবাড়িসহ জমি দখল চেষ্টা তালায় সেনাসদস্যের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার তালায় ভানী ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এতিমদের মাঝে খাদ্য বিতরণ উত্তরণের বাস্তবায়নে তিনমাস মেয়াদী কারিগরি প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধন পাইকগাছায় সুন্দরবনের বনদস্যু বাহিনীর প্রধান রুস্তম অস্ত্রসহ আটক মুক্তিযোদ্ধাদের নামের আগে ‘বীর’ ব্যবহার করতে হবে, গেজেট প্রকাশ

কলারোয়ায় বাবা-মা ভাই-বোনের রক্তাক্ত দেহের পাশে ৪ মাসের শিশু

অনলাইন ডেস্ক :

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২০, ১৭:২৯
  • ৮৯

চার মাসের শিশু কন্যা মারিয়া। রাতে শুয়েছিল বাবা-মা ও বড় ভাই-বোনের সঙ্গে। ঘুম থেকে উঠে কাঁদতে থাকে মেয়েটি। তখনও পাশেই ছিল বাবা-মা, ভাই-বোন। কিন্তু কেউ তার কান্নায় সাড়া দিচ্ছিল না।

এক পর্যায়ে শিশুটির চিৎকারে পাশের ঘর থেকে ছুটে আসেন চাচা। ঘরে ঢুকে বাবা-মা আর ভাই-বোনের রক্তাক্ত দেহের পাশ থেকে উদ্ধার করা হয় ছোট্ট মারিয়াকে।

সাতক্ষীরার কলারোয়া খলসি গ্রামে বৃহস্পতিবার ভোররাতে দুর্বৃত্তরা গলা কেটে হত্যা করে মারিয়ার বাবা হ্যাচারি মালিক শাহিনুর রহমান (৪০), মা সাবিনা খাতুন (৩০), ভাই সিয়াম হোসেন মাহি (৯) ও বোন তাসনিমকে (৬)।

নিহত শাহিনুর রহমানের ছোটভাই রায়হানুল ইসলাম জানান, বাড়িতে মা ও বড় ভাইয়ের পরিবারের পাঁচ জনসহ তারা সাত জন থাকতেন। মা বুধবার আত্মীয় বাড়িতে ছিলেন। তিনি (রায়হানুল) ছিলেন পাশের ঘরে।

ভোরে পাশের ঘর থেকে তিনি কান্নার শব্দ শুনতে পান। গিয়ে দেখেন ঘরের দরজা বাইরে থেকে তালা মারা। তালা ভেঙে ঘরে ঢুকে ভাই-ভাবির মরদেহ দেখতে পান। তখনও গোঙাচ্ছিল সিয়াম ও তাসনিম। এর কিছুক্ষণ পর থেমে যায় তাদের গোঙানি।

কলারোয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ঘটনাস্থল থেকে জানান, ঘরে ঢুকে চার জনকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। এদের মধ্যে শাহিনুরের পা বাঁধা ছিল। একতলা ওই বাড়ির চিলেকোঠার দরজা খোলা ছিল। ডাকাতি করতে এসে এই হত্যা বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ চারটি সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত মামলা হয়নি।

খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল ও এসপি মোস্তাফিজুর রহমানসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। শিশু মারিয়াকে এক ইউপি সদস্যের জিম্মায় দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

অন্যকে জানাতে শেয়ার করুন

আরও পড়ুন